1. admin@jn24news.com : admin :
  2. mail.bizindex@gmail.com : newsroom :
বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১:১০ পূর্বাহ্ন

যেসব বিষয় গুরুত্ব দিবে আ.লীগের নির্বাচনি ইশতেহারে

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৫০ Time View

জেএন ২৪ নিউজ ডেস্ক: সুশাসন প্রতিষ্ঠা, গণতন্ত্র ও স্বাধীনতাকে গুরুত্ব দিয়ে নির্বাচনি ইশতেহার প্রস্তুত করছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগের ইশতেহার প্রণয়ন কমিটির আহ্বায়ক এবং দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক এমনটাই জানিয়েছে। তিনি বলেন, ‘সুশাসন ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা, গণতন্ত্র ও স্বাধীনতা, কৃষিখাতের বিষয়টিও নির্বাচনি ইশতেহারে আমরা গুরুত্ব দেব।’

তিনি আরও বলেন, ‘অতীতের মতো আওয়ামী লীগ এমন একটি ইশতেহার তৈরি করতে চায় যা জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষা পূরণ করে সবার কাছে প্রশংসনীয় হবে এবং দেশের উন্নয়ন অগ্রগতি ও মানুষের মৌলিক চাহিদা পূরণের সহায়ক হবে।’

বৃহস্পতিবার ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের নির্বাচনি ইশতেহার প্রণয়ন কমিটির প্রথম সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

সভায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, ইশতেহার প্রণয়ন কমিটির সদস্য সচিব দলের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ, অধ্যাপক ড. বজলুল হক খন্দকার, অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, ড. শামসুল আলম, ডা. দীপু মনি, শম রেজাউল করিম, শেখর দত্ত, ড. মাকসুদ কামাল, ড. মাহফুজুর রহমান, অধ্যাপক খায়রুল হোসেন, সাজ্জাদুল হাসান, তারানা হালিম, ওয়াসিকা আয়েশা খান, বিপ্লব বড়ুয়া, জুনায়েদ আহমেদ পলক, মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, অধ্যাপক মোহাম্মদ এ আরাফাত, সায়েম খান, সাদিকুর রহমান চৌধুরী, সাব্বির আহমেদ।

ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘আওয়ামী লীগের ইশতেহার তৈরি করার জন্য মুক্তিযুদ্ধের চেতনাধারী আওয়ামী লীগমনা বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরত এমন সুশীলদের প্রয়োজনের ডাকা হবে। প্রয়োজনে তাদের সঙ্গে বৈঠক হবে, কথা হবে, তাদের মতামত ও সুপারিশ নেওয়া হবে। এছাড়া মিডিয়ার ব্যক্তিদের কাছ থেকেও ইশতেহার বিষয়ে সুপারিশ নেওয়া হবে।’

কৃষমন্ত্রী বলেন, ‘সব কিছুর ঊর্ধ্বে আমরা তিনটা বিষয়কে গুরুত্ব দিই। কৃষিখাত, সেবাখাত, অর্থনৈতিক ও শিল্প উৎপাদন খাত। এই তিনটি খাত আওয়ামী লীগের ইশতেহারেও গুরুত্ব পাবে। কৃষিখাতের অবদান টোটাল জিডিপিতে কম আছে কিন্তু কৃষির গুরুত্ব কমেনি। খাদ্য নিরাপত্তার জন্য কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির ও উন্নয়নের জন্য কৃষির গুরুত্ব কমবে না। কৃষির উপর যে গুরুত্ব সেটা অব্যাহত থাকবে। ২০০৮ সালের নির্বাচনে ইশতেহারে আওয়ামী লীগ বলেছিল কৃষি হবে আমাদের সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়ার বিষয়। সেটা বাস্তবায়ন করে খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধি করে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম আমরা কমিয়ে আনব। সেটা করেছিল সরকার। বর্তমানে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির কারণে মানুষের সমস্যা হচ্ছে এটা আমরা স্বীকার করি। তবে বর্তমানে খাদ্যের (চাল) দাম নিম্নমুখী । দেশের ৭০ থেকে ৭৪ ভাগ খরচ হয় খাদ্য অর্থাৎ চালে। সেই চালের দাম বর্তমানে বাংলাদেশে নিম্নমুখী। বর্তমানে সরকারের খাদ্য গুদামে সর্বোচ্চ ২০ লাখ টন চাল মজুদ আছে, যা কোনোদিনই ছিল না। এই মুহূর্তে দেশের মিল মালিকরা সরকারকে চাল দিতে চায় তাতে মনে হচ্ছে কম দামে চাল কিনে সরকারকে তারা দিতে চায়। যখন চালের দাম বেশি থাকে তখন মিলাররা সরকারকে চাল দিতে চায় না। ডিমের দাম, তেলের দাম, সবজির দাম কিছুটা বেশি হলেও চালের দাম কম।’

কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমান সরকারের যে লক্ষ্য ছিল কৃষিতে বাংলাদেশ স্বয়ংসম্পূর্ণ হবে, সেই লক্ষ্যমাত্রা আমরা পূরণ করতে পেরেছি। ২০০৮ সালের সবজি উৎপাদন ছিল ৩ মিলিয়ন টন বর্তমানে ২০ কোটি ২০ লাখ টন। ৭ গুণ বেশি সবজি উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে।’

কৃষি ক্ষেত্রে সব সুযোগ-সুবিধা এবং কৃষির গুরুত্ব অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিন।

আবদুর রাজ্জাক আরও বলেন, ‘আমাদের মূল লক্ষ্য থাকবে শিল্প ও উৎপাদন খাত। ছোট শিল্পকে গুরুত্ব দেওয়ার পাশাপাশি ভারীশিল্পর দিকে আমাদের নজর বাড়াতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘তিনটি খাতকে গুরুত্ব দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা অর্থনৈতিক জোন করেছেন। ইকোনমিক জোনকে গুরুত্ব দিয়ে অবকাঠামো সুযোগ-সুবিধা এমনভাবে গড়ে তোলা হয়েছে যাতে সহজেই একজন উদ্যোক্তা শিল্প কারখানা স্থাপন করে দ্রুত সফল হতে পারে। সুশাসন, গণতন্ত্র আমাদের জাতীয় সংসদ হবে সব কর্মকাণ্ডের কেন্দ্রবিন্দু।’ ‘সুশাসন প্রতিষ্ঠার জন্য মিডিয়ার স্বাধীনতা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। সেটাও আমরা করব’ বলেন তিনি।

‘এই তিনটি বিষয়কে গুরুত্ব দিয়ে ইশতেহার প্রণয়ন করা হচ্ছে। সুশাসন ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করার জন্য নির্বাচনি ইশতেহারে আমরা গুরুত্ব দেব।’ বলেন ইশতেহার প্রণয়ন কমিটির আহ্বায়ক।

ড. আবদুর রাজ্জাক আরও বলেন, ‘সব ধর্ম-বর্ণের মানুষের অধিকারের বিষয়টি ইশতেহারে গুরুত্ব পাবে। এমনকি তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করার বিষয়টি গুরুত্ব পাবে।’

‘দেশের সব মানুষকে সমান গুরুত্ব দিয়ে আগামী দিনে সরকার দেশ পরিচালনা করবে- সেই বিষয়টি ইশতেহারে তুলে ধরা হবে’ বলেও জানান কমিটির আহ্বায়ক।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইশতেহার প্রণয়ন কমিটির সঙ্গে সরাসরি সংযুক্ত হয়ে কাজ করবেন বলেও জানান সরকারের এই মন্ত্রী।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 Breaking News
Theme Customized By BreakingNews