1. admin@jn24news.com : admin :
  2. mail.bizindex@gmail.com : newsroom :
শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১২:১১ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
লিপ ইয়ারে সুসংবাদ দিলেন দীপিকা-রণবীর! জিডিপিতে বিমার অবদান বৃদ্ধি বাড়াতে সরকার কাজ করছে: প্রধানমন্ত্রী বাড়ছে করোনা, এ মাসেই মৃত্যু ৮ জনের ইউটিউব দেখে খতনার চর্চা গিয়ে প্রতিবেশী কিশোরের হাতে শিশুর মৃত্যু ভিকারুননিসায় ছাত্রীদের যৌন হয়রানির বিভিন্ন তথ্য পাওয়া গেছে: পুলিশ সাবেক স্বামীর মৃত্যুর পর চিকিৎসক লতাও মারা গেলেন নতুন মাত্রায় অপরাধ মোকাবিলায় পুলিশকে প্রস্তুত থাকতে হবে: প্রধানমন্ত্রী পশ্চিমারা রুশকে নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতায় টেনে আনতে চায়: পুতিন ঢাকা বার নির্বাচন কেন্দ্র করে উত্তেজনা, জজকোর্ট চত্বরে ককটেল বিস্ফোরণ বিসিএস নির্বাচনে ড. আরেফিন-ববী প্যানেলের নিরস্কুশ বিজ বাংলাদেশ কম্পিউটার সোসাইটির কেন্দ্রীয় ব্যবস্থাপনা

শেষ ধাপে প্রচারণা , রাত পোহালেই সিলেট ও রাজশাহী সিটিতে ভোট

  • Update Time : মঙ্গলবার, ২০ জুন, ২০২৩
  • ৬৬ Time View

জেএন ২৪ নিউজ ডেস্ক: রাত পোহালেই রাজশাহী ও সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচন। গাজীপুর, খুলনা ও বরিশালের পর শেষ ধাপে বুধবার এ দুটি সিটির ভোটের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন। আগের তিনটির মতো এ দুই সিটি নির্বাচনেও ভোট হবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন-এভিএমে। কেন্দ্রে ভোট পরিস্থিতি এবারও সিসি ক্যামেরায় দেখবে কমিশন।

আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টিসহ কয়েকটি দল ভোটে অংশ নিলেও নেই বিএনপি। বরিশালে এক মেয়র প্রার্থীর ওপর হামলার পর ইতোমধ্যে সিলেট-রাজশাহীর ভোট বর্জন করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। এমন পরিস্থিতিতে কোনো চ্যালেঞ্জের মুখে না থাকলেও কমিশন বরাবরের মতো এবারও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন আয়োজনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

এবার সিলেটে ভোটে নেমেছেন মোট ৩৬৭ জন প্রার্থী। এর মধ্যে মেয়র পদে লড়ছেন ৮ জন। তারা হলেন, আওয়ামী লীগের আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী (নৌকা), জাতীয় পার্টির নজরুল ইসলাম বাবুল (লাঙ্গল), ইসলামী আন্দোলনের মাহমুদুল হাসান (হাতপাখা), জাকের পার্টির মো. জহিরুল আলম (গোলাপ ফুল), স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. শাহ জাহান মিয়া (বাস), মো. ছালাহ উদ্দিন রিমন (ক্রিকেট ব্যাট) ও মোশতাক আহমেদ রউফ মোস্তফা (হরিণ)। তবে নির্বাচন বর্জন করেছেন হাত পাখার মাহমুদুল হাসান।

নগরীর ৫৬ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রার্থী ৩৬০ জন। তবে অস্ত্রের মহড়া দেওয়ার অভিযোগে ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আফতাব হোসেন খানের প্রার্থিতা বাতিল করেছে নির্বাচন কমিশন।

এ সিটিতে ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৮৭ হাজার ৭৫৩ জন। এরমধ্যে পুরুষ ২ লাখ ৫৪ হাজার ৩৬৩, নারী ২ লাখ ৩৩ হাজার ৩৮৪ জন, তৃতীয় লিঙ্গের রয়েছেন ৬ জন ভোটার। ১৯০ কেন্দ্রের ১ হাজার ৩৬৭ ভোটকক্ষে ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হবে। নির্বাচনে ১৯০ কেন্দ্রের মধ্যে ১৩২ কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ। বাকি ৫৮ কেন্দ্র ঝুঁকিমুক্ত বলে চিহ্নিত করা হয়েছে।

সিলেটের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ইমরুল হাসান জানান, সোমবার রাত ১২টার থেকে ৪২ ওয়ার্ডে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের ৪২ টিম, পাশাপাশি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের ১০টিম রয়েছে। প্রতিটি টিমের সঙ্গে রয়েছে ১ প্লাটুন বিজিবি।

রাজশাহীতে মেয়র পদে ৩ জন, ১০টি সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৪৬ জন এবং ৩০টি সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১১১ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মোট প্রার্থী ১৬০ জন।

মেয়র পদে প্রার্থী হলেন, আওয়ামী লীগের এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন (নৌকা), জাতীয় পার্টির মো. সাইফুল ইসলাম স্বপন (লাঙ্গল) এবং জাকের পার্টির মো. লতিফ আনোয়ার (গোলাপ ফুল)। এছাড়া ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. মুরশিদ আলম (হাতপাখা) নির্বাচন বর্জন করেছেন। তাই মেয়র পদে লড়ছেন ৩ জন।

রাজশাহী সিটিতে প্রচার শেষ হয়েছে সোমবার রাত ৮টায়। প্রচারে শেষদিন পর্যন্ত আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটনসহ জাতীয় পার্টির সাইফুল ইসলাম স্বপন ও জাকের পার্টির লতিফ আনোয়ার সক্রিয় ছিলেন।

রাজশাহী মহানগর পুলিশের গণমাধ্যম বিষয়ক মুখপাত্র অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) রফিকুল আলম জানান, সিটির ১৫৫ কেন্দ্রে তিন স্তর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রায় ৪ হাজার সদস্য কাজ করবে। এর মধ্যে বিভিন্ন কেন্দ্রে থাকবে সাড়ে তিন হাজারের বেশি পুলিশ।

রাজশাহী র‌্যাব-৫ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল রিয়াজ শাহরিয়ার জানিয়েছেন, কেন্দ্রের বাহিরে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসাবে ২৫০ জন র‌্যাব সদস্য মাঠে থাকবে। এছাড়া ভোটের মাঠে থাকবে ৭ প্লাটুন বিজিবি।

রাজশাহী সিটি নির্বাচনে মোট ভোটকেন্দ্র ১৫৫। এরমধ্যে ১৪৮টিকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা হয়েছে। মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৫২ হাজার ১৫৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৭১ হাজার ১৮৫ ও নারী ভোটার ১ লাখ ৮০ হাজার ৯৭২ জন। নির্বাচনে ২৯ ওয়ার্ডে ১১২ জন কাউন্সিলর প্রার্থী ও ১০ সংরক্ষিত নারী আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৪৬ জন নারী কাউন্সিলর প্রার্থী।

রাজশাহী ও সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশ ও বিজিবির পাশাপাশি চার হাজার ৩৩৮ জন আনসার ও ভিডিপি সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এর মধ্যে রাজশাহীতে ১৫৫টি ভোটকেন্দ্রে এক হাজার ৮৬০ জন এবং সিলেটে ১৯০টি ভোটকেন্দ্রে দুই হাজার ২৮০ জন আনসার-ভিডিপি সদস্য নিরাপত্তা রক্ষার দায়িত্বে মোতায়েন করা হয়েছে।

আনসার সদর দপ্তরের সহকারী পরিচালক ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. জাহিদুল ইসলাম জানান, রাজশাহীতে ৭৫ জন ব্যাটালিয়ন আনসার সদস্য ১৫টি টিমে বিভক্ত হয়ে অস্ত্রসহ স্ট্রাইকিং ফোর্স, কুইক রেসপন্স টিম হিসেবে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় দায়িত্ব পালন করছে। প্রতি ৬টি সাধারণ ওয়ার্ডের জন্য একজন করে ৫ জন কর্মকর্তার সমন্বয়ে নির্বাচন মনিটরিং টিম এবং ৯ জন সদস্যের একটি নির্বাচন পরিচালনা টিম কাজ করছে।

আনসারের রাজশাহী রেঞ্জ কমান্ডার উপ-মহাপরিচালক কামরুন নাহার বলেন, গত ১৮ জুন থেকে চারজনের সমন্বয়ে ২৪ ঘণ্টার জন্য নির্বাচন কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে। রাজশাহী জেলা কমান্ড্যান্ট মো. রাকিবুল ইসলাম নির্বাচনে আনসার মোতায়েনের যাবতীয় বিষয় তদারকি করছেন।

সিলেটে সাধারণ আনসার ও ভিডিপি সদস্য ছাড়াও কর্মকর্তাসহ তিন প্লাটুন ব্যাটালিয়ন আনসার সদস্য ২১টি টিমে বিভক্ত হয়ে অস্ত্রসহ স্ট্রাইকিং ফোর্স, কুইক রেসপন্স টিম এবং রিজার্ভ টিম হিসেবে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সার্বক্ষণিক দায়িত্বে নিয়োজিত রয়েছে।

এ বিষয়ে সিলেটের রেঞ্জ কমান্ডার পরিচালক মুহাম্মদ মেহেদী হাসান বলেন, টানা বৃষ্টির মধ্যেও ভোটকেন্দ্র এবং ভোটারদের নিরাপত্তায় নির্বাচন কমিশনের সার্বিক দিক নির্দেশনায় মঙ্গলবার আমরা সারাদিন কাজ করছি। বৃষ্টির জন্য ভোট গ্রহণে বাধার সৃষ্টি হবে না। মোতায়েন করা আনসার সদস্যদের নির্বাচন সরঞ্জামাদিসহ ভোটকেন্দ্রে যাওয়া এবং রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে কীভাবে তারা ফিরে আসবে ও নির্বাচনে করণীয়-বর্জনীয় এবং ইভিএম মেশিন অপারেটিং বিষয়ে বিস্তারিত ব্রিফিং প্রদান করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 Breaking News
Theme Customized By BreakingNews