1. admin@jn24news.com : admin :
  2. mail.bizindex@gmail.com : newsroom :
বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৪৬ পূর্বাহ্ন

ব্যালটের স্বচ্ছতা- সাথে ভোটকেন্দ্রের গোপনীয়তা রক্ষায় ইসির নির্দেশনা

  • Update Time : শনিবার, ৩০ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৪০ Time View

জেএন ২৪ নিউজ ডেস্ক: দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন যাতে সুষ্ঠু, অবাধ, শান্তিপূর্ণ ও নিরপেক্ষভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে আইন ও বিধিগত দিকগুলো মাঠ পর্যায়ে যথাযথভাবে প্রয়োগ করার জন্য প্রিজাইডিং অফিসার এবং সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারগণকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়ে পরিপত্র জারি করেছে নির্বাচন কমিশন।

শনিবার (৩০ ডিসেম্বর) মো. আতিয়ার রহমান (উপসচিব নির্বাচন পরিচালনা-২ অধিশাখা)স্বাক্ষরিত পরিপত্র ১৬ তে এ নির্দেশনা জারি করা হয়।

পরিপত্র নির্দেশনায় বলা হয়, ভোটগ্রহণের জন্য স্বচ্ছ ব্যালট বাক্স ব্যবহার করতে হবে। একই ধরনের ভিন্ন ভিন্ন নম্বর যুক্ত স্বচ্ছ ব্যালট বাক্স (ট্রান্সলুসেন্ট ব্যালট বাক্স) সকল জেলা পর্যায়ে প্রেরণ করা হয়েছে। প্রত্যেক ভোটকক্ষের জন্য ১টি করে এবং প্রতিটি ভোটকেন্দ্রের জন্য ১টি অতিরিক্ত হিসেবে ব্যালট বাক্স প্রদানের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। কোনো ভোটকক্ষে একই সঙ্গে একাধিক ব্যালট বাক্স ব্যবহার করা যাবে না। ব্যালট বাক্স পূর্ণ হয়ে যাওয়ার পর অন্য একটি ব্যালট বাক্স প্রদান করা হবে।

অতিরিক্ত ব্যালট বাক্স ব্যবহারের নির্দেশনায় বলা হয়েছে যে, প্রিজাইডিং অফিসার পূর্ন ব্যালট বাক্স তার নিজের স্বাক্ষর ও সিলমোহর দ্বারা এবং উপস্থিত প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বা নির্বাচনি এজেন্ট বা পোলিং এজেন্টদের মধ্যে যারা ইচ্ছুক তাদের সিলমোহর বা দস্তখত দ্বারা সিল করে দিবেন এবং বাক্সকে একটি সুরক্ষিত স্থানে রাখবেন। অতঃপর ভোটগ্রহণ শুরু হওয়ার পূর্বে ভোটকক্ষে যে পদ্ধতিতে ব্যালট বাক্স দিতে হয় সেই পদ্ধতি পুনরায় একটি নতুন ব্যালট বাক্স ব্যবহার করবেন। ব্যালট পেপারের অপর পৃষ্ঠায় অফিসিয়াল সিলমোহর ও স্বাক্ষর প্রদান করবেন।

ভোটারকে ব্যালট পেপার প্রদানের নিয়ম তুলে ধরে পরিপত্রে বলা হয়, ভোটারের পরিচয় সনাক্তকরণের পর প্রকৃত ভোটারকে ব্যালট পেপার প্রদানের সময় ব্যালট পেপারের অপর পৃষ্ঠায় গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ, ১৯৭২ এর অনুচ্ছেদ ৩১ এর দফা (২)(ঘ)-এর বিধান অনুসারে অফিসিয়াল সিল দ্বারা ছাপ এবং স্বাক্ষর দিয়ে ভোটারকে ব্যালট পেপার হস্তান্তর করতে হবে। যে সিল (মার্কিং সিল) দ্বারা ব্যালট পেপার ভোটচিহ্ন দিতে হবে, সেই সিলটি স্ট্যাম্প প্যাডের কালি লাগাবার পর তাতে অধিক কালি লেগেছে কিনা তা ভোটারকে পরীক্ষা করে নিতে পরামর্শ দিবেন। মার্কিং সিলে স্ট্যাম্প প্যাডের কালি অধিক পরিমাণ লাগলে তা প্রথমে কেবলমাত্র সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারের সম্মুখে রক্ষিত সাদা বা অব্যবহৃতব্য অন্য কোনো কাগজে ছাপ দিয়ে কালির অবস্থা পরীক্ষা করে মার্কিং প্লেসে ব্যালট পেপারের নির্দিষ্ট স্থানে ছাপ দেয়ার জন্য প্রত্যেক ভোটারকে অবশ্যই পরামর্শ দিতে হবে। স্ট্যাম্প প্যাডটিতে কালির প্রকৃত অবস্থা মাঝে মাঝে সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার/পোলিং অফিসার পরীক্ষা করে দেখবেন।

এছাড়া ভোটগ্রহণের জন্য রাবারের মার্কিং সিল ও অফিসিয়াল সিল সঠিক ও ব্যবহার যোগ্য কিনা তা ব্যবহার করে যাচাই করতে হবে। যে ভোটকেন্দ্রের এবং ভোটকক্ষের জন্য যে ভোটার তালিকা ব্যবহার করা হবে তা উক্ত কেন্দ্রের অথবা কক্ষের জন্য প্রযোজ্য কিনা তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে গ্রহণ করতে হবে। ভোটারদের যাতে হয়রানির শিকার না হয় এবং সহজেই তাদের ভোটকেন্দ্র সনাক্ত করতে পারেন, সেই লক্ষ্যে ভোটকেন্দ্র সম্পর্কে পূর্বেই ব্যাপক প্রচারের ব্যবস্থা করতে হবে। ভোটগ্রহণের দিন ভোটকক্ষ সনাক্তকরণের সুবিধার্থে ভোটকক্ষের প্রবেশ পথে ভোটারদের ভোটার সংখ্যার ক্রমিক নম্বর প্রদর্শন করে একটি বিবরণী সেঁটে দিতে হবে।

পরিপত্রে আরও বলা হয়, ভোটদানের জন্য মার্কিং প্লেস স্থাপন করতে হবে। ব্যালট পেপারে ভোটচিহ্ন প্রদানের জন্য যেখানে মার্কিং প্লেস নির্ধারণ করা হবে সে স্থানের গোপনীয়তা অবশ্যই রক্ষা করতে হবে। মার্কিং প্লেস যাতে কোনো জানালার পাশে স্থাপন না করা হয় তার ব্যবস্থা করতে হবে। যদি তা একান্তই সম্ভব না হয়, তবে ভোটদানের জন্য মার্কিং প্রেসের আশে পাশে জানালা থাকলে তা সম্পূর্ণ বন্ধ করে দিতে হবে অথবা উক্ত মার্কিং প্লেসের আশে পাশের দেয়াল, বেড়া, বেষ্টনী ভগ্ন/ভাঙ্গা বা উন্মুক্ত থাকলে তা এমনভাবে বন্ধ করে দিতে হবে, যাতে কেউ ভোটদানের সময় কোনোক্রমেই দেখতে না পায় বা কোনো ইঙ্গিত করার সুযোগ না পায়। ভোটকেন্দ্র হিসেবে স্থাপিত প্রতিষ্ঠানের একটি কক্ষের মধ্যে একাধিক ভোটকক্ষ স্থাপন করা কোনোক্রমেই সমীচীন নয়। কারণ তাতে ভোটারদের নির্ধারিত ভোটকক্ষে ভোটদানে জটিলতার সৃষ্টি হয় এবং ফলস্বরুপ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাহিরে চলে যায়।

তবে ‘যদি কোনো প্রতিষ্ঠানে ভোটকেন্দ্রের পরিসর এবং ফলস্বরূপ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের একাধিক ভোটকক্ষে স্থাপন করা হয় তা হলে প্রত্যেক ভোটকক্ষের অবস্থান বা এলাকা সুনির্দিষ্টভাবে চট বা চাটাই অথবা অন্য কোনো বস্তু দিয়ে বেস্টনী তৈরি করতে হবে যাতে এক ভোটকক্ষ হতে অন্য ভোটকক্ষের মধ্যে যাতায়াত করা না যায় বা কথাবার্তার আদান প্রদান করা সম্ভব না হয়’ এমন বিকল্প নির্দেশনাও দিয়েছে ইসি। এছাড়াও নির্দেশনায় বলা হয়, প্রতিটি ভোটকন্দ্রে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা রাখতে হবে। ভোটগ্রহণের শেষ পর্যায়ে এবং ভোট গ্রহণের সময় আলোর স্বল্পতা দেখা দিতে পারে। প্রতিবিধান স্বরূপ ভোটকেন্দ্রে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা রাখতে হবে। ভোটগ্রহণের দিন অপরাহ্নের দিকে বেশী সংখ্যক ভোটার ভোটদানের জন্য জমায়েত হতে পারেন। শেষ মুহূর্তে যাতে এরূপ ভোটারগণ সুশৃঙ্খলভাবে ভোট দিতে পারেন, তার জন্য কর্মরত নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের সাথে আলোচনাক্রমে ব্যবস্থা করতে হবে।

ভোটের দিন ক্যাম্প স্থাপন সম্পকে পরিপত্রে বলা হয়, কোনো ভোটকেন্দ্রের ৪০০ গজ ব্যাসার্ধের মধ্যে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী অথবা তাহার পক্ষে কেহ ক্যাম্প করতে পারবে না। ভোটকেন্দ্রের নির্ধারিত ৪০০ গজ চৌহদ্দীর মধ্যে নির্বাচনি প্রচারণার উদ্দেশ্যে পোস্টার, হ্যান্ডবিল বা উক্তরূপ কোনো প্রকার প্রচারপত্র থাকলে তা ভোটগ্রহণ শুরু হওয়ার পূর্বেই সরিয়ে ফেলতে হবে। কেউ যেন ভোটের জন্য ক্যানভাস না করতে পারেন বা কাউকে ভোটদানের জন্য উৎসাহিত বা নিরুৎসাহিত করতে না পারেন সেই দিকে কড়া নজর রাখতে হবে। ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠান নির্ধারিত সময়ে অর্থাৎ সকাল ৮-০০ টায় শুরু করতে হবে। কোনো ক্রমেই বিলম্বে ভোটগ্রহণ শুরু করা যাবে না।

ভোটারদের যানবাহন ব্যবহার প্রসঙ্গে নির্দেশনায় বলা হয়, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী, তাদের নির্বাচনি এজেন্ট, পোলিং এজেন্ট এবং সমর্থকগণ যাতে ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে আনয়নের জন্য কোনো প্রকার যানবাহন ব্যবহার করতে না পারেন অথবা আচরণ বিধিমালা অনুসরণ করেন- সে বিষয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীগণের করণীয় ও বর্জনীয় দিকগুলো উল্লেখ করে সতর্ক করে দিতে হবে। অন্যথায় আচরণ বিধিমালা ভঙ্গের দায়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

সবশেষে পরিপত্রে, যেকোনো অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে সকল ব্যবস্থাবলী যাতে সুষ্ঠু, অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানের স্বার্থে যথাযথভাবে গ্রহণ করা হয় তার নিশ্চয়তা বিধানের জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 Breaking News
Theme Customized By BreakingNews