1. admin@jn24news.com : admin :
  2. mail.bizindex@gmail.com : newsroom :
মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০৯:১৩ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশের উন্নয়নের গল্প থেকে অনেক দেশের শেখার আছে: বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট

  • Update Time : বুধবার, ৩ মে, ২০২৩
  • ৫১ Time View

জেএন ২৪ নিউজ ডেস্ক: বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট ডেভিড ম্যালপাস সম্প্রতি দুটি টুইট করেছেন। এতে তিনি বাংলাদেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের প্রশংসা করে বলেছেন, এখান থেকে অনেক দেশের শেখার আছে।

দুটি টুইটই আবার বিশ্বব্যাংকের অফিসিয়াল একাউন্ট থেকে রিটুইট করা হয়েছে। ডেভিড ম্যালপাস তার টুইটে শেখ হাসিনার সঙ্গে প্রদর্শনীর উদ্বোধনের ছবি টুইট করে লিখেছেন, ‘বাংলাদেশের সঙ্গে বিশ্বব্যাংক গ্রুপের অংশীদারিত্বের ৫০তম বার্ষিকী দেশটির প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ উদযাপন করতে পেরে আনন্দিত। দারিদ্র্য হ্রাস, নারীর ক্ষমতায়ন এবং জলবায়ু পরিবর্তনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে বাংলাদেশের উদ্ভাবনী পদ্ধতি থেকে অনেক দেশ শিখতে পারে।’

পরের টুইটে ডেভিড ম্যালপাস লিখেছেন, ‘৫০ বছরের অংশীদারিত্ব উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও মন্ত্রিপরিষদের সদস্যদের সঙ্গে মধ্যাহ্নভোজের শুভ বৈঠক।’

দ্বিতীয় টুইটের সঙ্গে বাংলাদেশকে ২ দশমিক ২৫ বিলিয়ন ডলার ঋণ দেয়ার বিশ্বব্যাংকের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিটি সংযুক্ত করেছেন বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট।

এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে নিজের হাস্যোজ্জল একটি ছবি টুইট করেছেন বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং করপোরেট সেক্রেটারি মার্সি টেমবন। টুইটে তিনি লিখেছেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে বিশ্বব্যাংক গ্রুপ এবং বাংলাদেশের প্রভাবশালী অংশীদারিত্বের ৫০ বছর উদযাপন করছি। বাংলাদেশ সত্যিকার অর্থেই বিশ্বের অন্যতম সেরা উন্নয়ন সাফল্যের গল্প। এর অনেক ভালো উদাহরণ রয়েছে যা ব্যাপকভাবে অনুকরণীয়।

বাংলাদেশকে ২২৫ কোটি মার্কিন ডলার ঋণ দিতে সম্মত হয়েছে বিশ্বব্যাংক। আঞ্চলিক বাণিজ্য ও যোগাযোগ, দুর্যোগ প্রস্তুতি ও পরিবেশ ব্যবস্থাপনার পাঁচটি উন্নয়ন প্রকল্পে এ ঋণ দেয়া হবে।

ওয়াশিংটনে স্থানীয় সময় গত সোমবার (১ মে) বিশ্ব ব্যাংকের সদর দপ্তরে বাংলাদেশ ও বৈশ্বিক ঋণদাতা সংস্থার মধ্যে এ ঋণচুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট ডেভিড মালপাস উপস্থিত ছিলেন।

পাঁচটি প্রকল্প হলো: রেজিলিয়েন্ট ইনফ্রাস্ট্রাকচার বিল্ডিং প্রজেক্ট (আরআইভিইআর), বাংলাদেশ এনভায়রনমেন্ট সাসটেইনেবলিটি এন্ড ট্রান্সফরমেশান (বিইএসটি), অ্যাকসেলারেটিং ট্রান্সপোর্ট এন্ড ট্রেড কানেক্টিভিটি ইন ইস্টার্ন সাউথ এশিয়া (এসিসিইএসএস)-বাংলাদেশ ফেজ-১, ফার্স্ট বাংলাদেশ গ্রিন এন্ড ক্লাইমেট রেজিলিয়েন্ট ডেভেলপমেন্ট (জিসিআরডি) এবং সাসটেইনেবল মাইক্রোএন্টারপ্রাইজ এন্ড রেজিলিয়েন্ট ট্রান্সফরমেশন (এসএমএআরটি)।

এসব প্রকল্পের মধ্যে অভিযোজন ও ঝুঁকি হ্রাসের জন্যে পাঁচশ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের ‘রেজিলিয়েন্ট ইনফ্রাস্ট্রাকচার বিল্ডিং প্রজেক্ট রয়েছে যা ‘ডেল্টা প্ল্যান ২১০০’ বাস্তবায়নে প্রথম বড় বিনিয়োগ প্রকল্প। এটি আভ্যন্তরীণ বন্যার বিরুদ্ধে দুর্যোগ প্রস্তুতির উন্নয়নে সহায়তা করবে।

দ্বিতীয় প্রকল্প ২৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয়ে বাংলাদেশ এনভায়রনমেন্টাল সাসটেইনেবল এন্ড ট্রান্সফরমেশান (বিইএসটি)। এটি বাংলাদেশে পরিবেশ ব্যবস্থাপনা শক্তিশালী করতে এবং সবুজ বিনিয়োগে বেসরকারি খাতের অংশগ্রহণকে উৎসাহিত করতে সহায়তা করবে।

তৃতীয় প্রকল্পটি হলো ৭৫৩.৪৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয়ে অ্যাকসেলারেটিং ট্রান্সপোর্ট অ্যান্ড ট্রেড কানেক্টিভিটি ইন ইস্টার্ন সাউথ এশিয়া (এসিসিইএসএস)-বাংলাদেশ ফেজ-১ যা ঢাকাকে আঞ্চলিক বাণিজ্য ও সংযোগ বাড়াতে সাহায্য করবে।

চতুর্থ প্রকল্প ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের ফার্স্ট বাংলাদেশ গ্রিন অ্যান্ড ক্লাইমেট রেজিলিয়েন্ট ডেভেলপমেন্ট (জিসিআরডি) যা দেশকে সবুজ ও জলবায়ু সহনশীল উন্নয়নে সহায়তা করবে। আর পঞ্চম ও সর্বশেষ প্রকল্প ২৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের সাসটেইনেবল মাইক্রোএন্টারপ্রাইজ এন্ড রেজিলিয়েন্ট ট্রান্সফরমেশনান (এসএমএআরটি)। এটি ক্ষুদ্র শিল্প খাতকে আরও গতিশীল, কম দূষণকারী, দক্ষ এবং জলবায়ু সহনশীল প্রবৃদ্ধির খাতে রূপান্তরে সহায়তা করবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 Breaking News
Theme Customized By BreakingNews