1. admin@jn24news.com : admin :
  2. mail.bizindex@gmail.com : newsroom :
সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ১০:৪১ পূর্বাহ্ন

প্রেসিডেন্ট পুতিনের বাসভবনে ইউক্রেনের ড্রোন হামলা

  • Update Time : বুধবার, ৩ মে, ২০২৩
  • ৪৬ Time View

জেএন ২৪ নিউজ ডেস্ক: রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভবন ক্রেমলিনে প্রথমবারের মতো ড্রোন হামলার ঘটনা ঘটেছে। ক্রেমলিনের দাবি, প্রেসিডেন্ট পুতিনকে হত্যার উদ্দেশ্যে এই হামলাটি চালিয়েছে ইউক্রেন। তবে তাদের সেই প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। খবর রয়টার্সের।

ইউক্রেনের একজন সিনিয়র প্রেসিডেন্টের কর্মকর্তা রাশিয়ার এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, ১৪ মাসের যুদ্ধে কিয়েভকে একেবারে মিশিয়ে দিয়েছে মস্কো। এটাই ইঙ্গিত দেয় যে, মস্কো একটি বড় ধরণের ‘সন্ত্রাসীমূলক উসকানি’ দিতে নিজেকে প্রস্তুত করছে।

ক্রেমলিন বলেছে, রাশিয়া প্রতিশোধ নেওয়ার অধিকার সংরক্ষণ করেছে এবং কট্টরপন্থীরা ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতি ভলোদিমির জেলেনস্কির বিরুদ্ধে দ্রুত প্রতিশোধের দাবি করেছে। দুটি মনুষ্যবিহীন বিমান ক্রেমলিনের লক্ষ্য ছিল। রাডার যুদ্ধ ব্যবস্থা ব্যবহার করে সেনাবাহিনী এবং বিশেষ পরিষেবাগুলোর সময়মত পদক্ষেপের ফলে ডিভাইসগুলিকে দুর্ঘটনা ঘটানোর বাইরে রাখা হয়েছিল।

বিবৃতিতে ক্রেমলিন আরও বলেছে, ‘বিজয় দিবসের প্রাক্কালে, ৯ মে প্যারেড অনুষ্ঠিত হবে যেখানে বিদেশি অতিথিদের উপস্থিতিও পরিকল্পনা করা হয়েছিল, ঠিক তার আগ মুহুর্তে ঘটা এই ক্রিয়াকলাপগুলোকে আমরা একটি পরিকল্পিত সন্ত্রাসী কাজ এবং রাষ্ট্রপতির জীবনের ওপর প্রচেষ্টা হিসেবে বিবেচনা করি। রুশ পক্ষ যেখানে এবং যখন উপযুক্ত মনে করে প্রতিশোধমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার অধিকার রাখে।’

রাশিয়ার আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর সঙ্গে জড়িত টেলিগ্রাম চ্যানেল বাজা একটি ভিডিও পোস্ট করেছে। ভিডিওতে দেখা গেছে, ক্রেমলিন সিনেট ভবনের গম্বুজের কাছে একটি উড়ন্ত বস্তু যা রেড স্কোয়ারে (বিজয় দিবসের কুচকাওয়াজের স্থান) উড়ছে। পৌঁছানোর ঠিক আগে আলোর তীব্র বিস্ফোরণে বিস্ফোরিত হচ্ছে। তবে রয়টার্স তাৎক্ষণিকভাবে ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করতে পারেনি।

ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতির উপদেষ্টা মাইখাইলো পোডোলিয়াক রয়টার্সকে বলেছেন, ‘ক্রেমলিনের ওপর ড্রোন হামলার সঙ্গে ইউক্রেনের কোনো সম্পর্ক নেই। আমরা ক্রেমলিন আক্রমণ করি না কারণ, প্রথমত, এটি কোনো সামরিক কাজের সমাধান করে না।’

তিনি আরও বলেছেন, ‘আমার মতে, এটা একেবারেই সুস্পষ্ট যে ‘ক্রেমলিনের ওপর হামলার প্রতিবেদন’ এবং একই সঙ্গে ক্রিমিয়ায় ইউক্রেনীয় নাশকতাকারীদের আটক করা স্পষ্টভাবে রাশিয়ার দ্বারা আগামী দিনগুলোতে একটি বড় আকারের সন্ত্রাসী উস্কানির প্রস্তুতির ইঙ্গিত দেয়।’

রাশিয়ার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষের শক্তিশালী স্পিকার ভ্যাচেস্লাভ ভোলোদিন কিয়েভ সন্ত্রাসী শাসনকে থামাতে ও ধ্বংস করতে সক্ষম অস্ত্র ব্যবহারের দাবি জানিয়ে একটি বিবৃতি জারি করেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 Breaking News
Theme Customized By BreakingNews