1. admin@jn24news.com : admin :
  2. mail.bizindex@gmail.com : newsroom :
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০৩:০০ অপরাহ্ন

গত মাসে প্রতিদিন ৭ লাখ ব্যারেল তেল উৎপাদন কমিয়েছে রাশিয়া

  • Update Time : শনিবার, ৮ এপ্রিল, ২০২৩
  • ৭১ Time View

জেএন ২৪ নিউজ ডেস্ক: রাশিয়ার জ্বালানি মন্ত্রণালয় বলেছে দেশটি গত মাসে দিনে প্রায় ৭ লাখ ব্যারেল তেলের উৎপাদন কমিয়েছে। সংশ্লিষ্ট এক কর্মকার্তার বরাত দিয়ে ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়েছে। তবে পরিসংখ্যানটি মার্চে রাশিয়ার সমুদ্রজাত রপ্তানি এবং দেশীয় শোধনাগারগুলোতে সরবরাহের ডেটার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয় বলে বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন। কেননা রাশিয়া আসলে কতটা তেল পাম্প করে তা নিয়ে দেখা দিয়েছে ঘোর অনিশ্চয়তা।

ক্রেমলিন পশ্চিমা বাণিজ্য বিধিনিষেধ এবং সাতটি শিল্পোন্নত দেশের জোট জি-৭ গ্রুপের দ্বারা আরোপিত মূল্যসীমার প্রতিশোধ স্বরুপ মার্চ থেকে ডিসেম্বরের মধ্যে দৈনিক ৫ লাখ ব্যারেল অপরিশোধিত তেল উৎপাদন হ্রাসের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে, হ্রাসের পরিমাণ ৪০ শতাংশের বেশি ছিল।

সৌদি আরবের ডি ফ্যাক্টো নেতাসহ পেট্রোলিয়াম রপ্তানিকারক দেশগুলোর অর্গানাইজেশনের আট সদস্য মে থেকে স্বেচ্ছাসেবী ঘাটতিতে যোগ দিতে সম্মত হয়েছে। বিশ্ব বাজারকে স্থিতিশীল করার প্রয়াসে প্রতিদিন মোট ১৬ লাখ ব্যারেল উৎপাদন কমানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তারা।

আশ্চর্যজনক সিদ্ধান্তটি অপরিশোধিত তেলের দাম ব্যারেল প্রতি ১০০ ডলারে নিয়ে যাওয়ার পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে। রাশিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী আলেকজান্ডার নোভাকের মতে, রাশিয়া ফেব্রুয়ারির উৎপাদনকে বেসলাইন হিসেবে ব্যবহার করে তার অপরিশোধিত একমাত্র আউটপুট কমিয়ে দেবে। শিল্প তথ্যের ওপর ভিত্তি করে ব্লুমবার্গের গণনা অনুযায়ী সেই মাসের উৎপাদন দিনে প্রায় ১১ লাখ ব্যারেল ছিল।

জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের তথ্য বলছে, উত্পাদকরা দৈনিক গড়ে ১২ লাখ ৮৫ হাজার টন অপরিশোধিত তেল উৎপাদন করেছে। তবে এ তথ্য প্রকাশ্য না হওয়ার কারণে ওই কর্মকর্তা পরিচয় গোপন রাখার অনুরোধ করেছেন।

তবে এটি মাত্র ৯৪ লাখ ব্যারেলের সমতুল্য, যার অর্থ কেবল অপরিশোধিত তেলের হ্রাস গত মাসে দিনে প্রায় ৭ লাখ ব্যারেল ছিল।

দেশটির মার্চ মাসে অপরিশোধিত তেল এবং কনডেনসেটের মোট উৎপাদন গড়ে ১৪ লাখ ১৩ হাজার টন ছিল বলে কর্মকর্তা জানান। ব্লুমবার্গের গণনা অনুসারে, এটি ফেব্রুয়ারিতে ১ কোটি ১১ লাখ ব্যারেলের তুলনায় প্রতিদিন ১ কোটি ৩৬ লাখ ব্যারেলের সমান ছিল। ফলস্বরূপ মোট হ্রাসের পরিমাণ ছিল দিনে গড়ে ৭ লাখ ৪০ হাজার ব্যারেল।

রাশিয়া তাদের ‘সংবেদনশীল’ প্রকৃতির কারণে গত বছর তার তেল পরিসংখ্যানকে শ্রেণীবদ্ধ করেছে, যা জ্বালানি কর্মকর্তাদের আশ্বাসের বাইরে সরবরাহ হ্রাস বাস্তবায়নের মূল্যায়ন করা কঠিন করে তুলেছে।

ফলস্বরূপ, রাশিয়ার পর্যবেক্ষকরা অপরিশোধিত উৎপাদনের অনুমানের পরিমাপক হিসেবে দেশের সমুদ্রজাত তেল রপ্তানি এবং অভ্যন্তরীণ তেল-প্রক্রিয়াকরণের হার অনুসরণ করা শুরু করেছে। যাইহোক, উভয় সূচক গত মাসে কোন দৃশ্যমান পতন দেখায়নি।

দেশের শিল্পের তথ্য এবং জাহাজ-ট্র্যাকিংয়ের ওপর ভিত্তি করে ব্লুমবার্গের পরিসংখ্যান অনুসারে, ৩১ মার্চ পর্যন্ত দেশটির চার-সপ্তাহের গড় অপরিশোধিত লোডিং জুনের পর থেকে সর্বোচ্চ ছিল। তখন রাশিয়ার শোধনাগারগুলি তাদের থ্রুপুট মোটামুটি সমতল রেখেছিল।

রাশিয়ার জ্বালানি মন্ত্রণালয় তাৎক্ষণিকভাবে মার্চের উত্পাদনের ডেটা এবং প্রতিশ্রুতিযুক্ত হ্রাসের পরিমাণ কতটুক গ্রহণ করা হয়েছিল সে সম্পর্কে মন্তব্য করতে পারেনি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 Breaking News
Theme Customized By BreakingNews