আইসিডিডিআরবিতে ৬ ঘণ্টায় ২৬৩ ডায়রিয়া রোগী

0
68

জেএন ২৪ নিউজ ডেস্ক: ঢাকায় হঠাৎ করে ডায়েরিয়ার প্রকোপ বাড়ার মধ্যে রোগটি নিয়ে মহাখালীর আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্রে (আইসিডিডিআরবি) আরও ২৬৩ জন রোগী এসেছে। গত শুক্রবার রাত থেকে শনিবার সকাল পর্যন্ত এই রোগীরা হাসপাতালে নতুন করে এসব রোগী ভর্তি হয়েছে বলে জানিয়েছে আইসিডিডিআরবি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তীব্র তাপদাহের মধ্যে প্রতিদিনই ডায়েরিয়া আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। তীব্র গরমের পাশাপাশি অনিরাপদ পানি পানের কারণে বেড়ে চলেছে ডায়েরিয়া রোগী। এমন পরিস্থিতিতে বাইরের খাবার ও ফুটানো ছাড়া পানি পরিহার করতে সতর্ক করছেন তারা।

আইসিডিডিআরবির মিডিয়া ম্যানেজার তারিফ হাসান জানান, শুক্রবার ১ হাজার ১৩৮ জন ডায়েরিয়া রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এরপর রাত ১২টা থেকে শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত আরও ২৬৩ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

আইসিডিডিআরবি বলছে, বিশেষ করে যাত্রাবাড়ী, সায়েদাবাদ, শনির-আখড়া, মোহাম্মদপুর, টঙ্গী ও উত্তরা থেকে রোগী বেশি আসছে। হাসপাতালে রোগীদের সংকুলান না হওয়ায় বাইরে তাবু টানিয়ে ডায়রিয়া রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

চিকিৎসকরা বলছেন, গরমে জীবাণু বেশিক্ষণ বেঁচে থাকে। তাছাড়া অনেকেই অনিরাপদ পানি পান করেন। এতে ডায়েরিয়া আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। তাই বাইরের কোনো খাবারের পাশাপাশি যেখান-সেখান থেকে পানি খাওয়া যাবে না।

আইসিডিডিআরবি হাসপাতাল শাখার প্রধান ডা. বাহারুল আলম জানান, আগের বছরগুলোর তুলনায় এবার গরমে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা অনেক বেশি। এছাড়া অন্যান্য বছরগুলোতে শিশু রোগীরা ডায়রিয়ায় বেশি আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়।

তিনি বলেন, ‘কিন্তু এবার ১৮ বছরের বেশি বয়সী রোগীরাই হাসপাতালে বেশি ভর্তি হচ্ছেন। এসব রোগীদের মধ্যে তীব্র পানিশূন্যতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তীব্র গরমে অস্বাস্থ্যকর খাবার ও অনিরাপদ পানীয় পান করায় ডায়রিয়ার প্রকোপ বেড়েছে মনে করছি আমরা।’

এদিকে ঢাকা শিশু হাসপাতালে ডায়রিয়া রোগী বেড়েছে। হাসপাতালটির পরিচালক ডা. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘শিশুরাও বাইরের খাবার খাচ্ছে। এতে পেটের অসুখে আক্রান্ত হচ্ছে। এ অবস্থায় ছোট বড় সবাইকে বাইরের খাবার পরিহার করা উচিত। পাশপাশি ফুটানো পানি পান করলে ডায়রিয়ার ঝুঁকি অনেকাংশে কমে আসবে।’